লোহাগাড়া উপজেলার পুটিবিলা ছুটার পাড়া এলাকায় ডলু খালের পাড় ঘেষে চলাচলের রাস্তার ভাঙন তিনবছরেও সংস্কার না হওয়ায় দূর্ভোগ বেড়ে চরমে

প্রকাশ: ২০২০-০৬-২১ ০৭:৩৫:০৭ 392 Views

লোহাগাড়া উপজেলার পুটিবিলা ছুটার পাড়া এলাকায় ডলু খালের পাড় ঘেষে চলাচলের রাস্তার ভাঙন তিনবছরেও সংস্কার না হওয়ায় দূর্ভোগ বেড়ে চরমে। অভিযোগের শেষ নেই।

বর্ষার শুরুতে গত কয়েকদিনে টানা ভারি ভর্ষণে পাহাড়ি ঢলে ডলু নদীর পানি বেড়ে যাওয়ার সাথে সাথে ভাঙ্গতে শুরু করেছে ছাটার পাড়ায় খালের পাড়। ভেঙে গেছে পাড়ঘেষা চলাচলের রাস্তা। দূর্ভোগে পড়েছে চলাচলরত জনসাধারণ।

২০ জুন (শনিবার) বিকেলে সরেজমিন পরিদর্শনে দেখা যায়, সড়কটির নাজুক অবস্থা। হেঁটে, বাইসাইকেল ও মোটর সাইকের নিয়ে কোনো মতে পার হওয়া যায়। তিনচাকা বা চার চাকার কোনো গাড়ি নিয়েচলাচল করা যায় না।

স্থানীয়দের সাথে কথা বলে জানা যায়, গত তিন বছরে স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান হাজী মো: ইউনুছের সাথে যোগাযোগ করেও কোনো সুরহা মেলেনি। স্থানীয় ইউপি সদস্য প্রতিদিন ওই সড়ক দিয়ে চলাচল করলেও দেখে না দেখার ভান করে। স্থানীয়রা কয়েকবার দিজেদের অর্থায়নে সড়কটি মেরামত করেছেন।

নিরপদ সড়ক চাই লোহাগাড়া শাখার সদস্য ও ওই এলাকার বাসিন্দা মো: জাহেদুল হক বলেন, সড়কটি দিয়ে বর্তমানে হেঁটে চলা দায় হয়ে পড়েছে। জনপ্রতিনিধিরা সবসময় কথা দিয়ে থাকে। কাজের কাজ কিছুই হচ্ছে না। বর্ষার শুরু আগাম বার্তা দিল ডলু খালের পাড় ঘেষা ছুটার পাড়া সড়কটির পাড় ভেঙে সড়ক ভাঙন। সড়কের প্রায় অংশ নদীতে বিলীন হয়ে গেছে।

স্থানীয় শফিক আহমদ বলেন, আমি প্রবাসে থাকতাম গত বছর প্রবাস থেকে দেশে এসেছি। স্ত্রীর কাছে শুনতাম ডলু খালের পাড় ভেঙে ছুটার পাড়ার সড়কটি ভেঙে গেছে। চলাচল করতে খুবই কষ্ট হচ্ছে। দেশে এসে নিজের চোখে দেখলাম সড়কটির প্রায় অংশ নদীতে বিলীন। স্থানীয় চেয়ারম্যানকে বিষয়টি অবহিত করলে চেয়ারম্যান বাজেট আসলে সড়ক সংস্কার করে দিবে বলে জানান। তবে কতো বাজেট আসল কাজের কাজ কিছুই হয়নি। বর্ষার শুরতে ভঙন শুরু হয়েছে। সামনে কি হয় আল্লাহ জানেন।

ওই এলাকার বয়োবৃদ্ধ আবুল হাশেম বলেন, ডলু খালে বালু উত্তোলনের ফলে খালের গভীরতা বেড়ে যায়। যার ফলে নদীর ডাড় ঘেষা সড়কটি খালে বিলীন হয়ে যাচ্ছে। জনপ্রতিনিধিরা ভোটের সময় ওয়াদা দিয়েও ওয়াদা রক্ষা করছে না। চেয়ারম্যান একবারের জন্য আমাদের দেখতে আসেনি, সড়ক সংস্কার করবে কেমনে।

নুরুল আলম চৌধুরী বলেন, গাড়ি ভর্তি লোকজন নিয়ে কয়েকবার চেয়ারম্যানের বাড়িতে গিয়েও কোনো প্রকার সুরহা না পেয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করেন।

স্থানীয় ইউপি সদস্য ডা: সবুজ কান্তি নাথ বলেন, ভঙনটি আমর এবং পরিষদের নজরে আছে। ভঙনটি বড় হওয়াতে পরিষদে এতো বাজে না থাকায় চেয়ারম্যান কতবার নিজ উদ্যোগে ইঞ্জিনিয়ার এনে দেখিয়েছেন। দীর্ঘদিন ধরে সংস্কার না হওয়ার কথাটি অটপটে স্বীকার করেন।

পুটিবিলা ইউপি চেয়ারম্যান হাজী মোহাম্মদ ইউনুছকে মুঠোফোনে পাওয়া না যাওয়ায় তার বক্তব্য নেওয়া সম্ভব হয়নি। তবে প্যানেল চেয়ারম্যান সুজিত বড়ুয়া কাজল বলেন, চেয়ারম্যানের নির্দেশে ভাঙ্গনস্থান পরিদর্শন করে চেয়ারম্যানকে অবহিত করি। জুলাই মাসের শুরুতে ছুটার পাড়ায় ডলু খালের পাড় ঘেষে সড়কের ভঙন রোধে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণ করা হবে।

লোহাগাড়া উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা মো: কামরুল হোসাইন বলেন, পুটিবিলা ছুটার পাড়ায় খালের পাড় ভেে সড়কে ভাঙন এ রকম কোন আবেদন অফিসে আসেনি।

উপজেলা প্রকৌশলী দিবাকর রায় বলেন, পুটিবিলা ছুটার পাড়ায় ডলু খালের ভাঙনে চলাচলের রাস্তা ভেঙে খালে বিলীন হয়ে যাচ্ছে এ ব্যাপারে কেউ জানায়নি।

ট্যাগ :



চেয়ারম্যান ও ব্যবস্থাপনা পরিচালক : মোঃ আব্দুল আজিজ
ডিএমডি : মোঃ আরমান তারেক

বার্তা কক্ষ :

ঢাকা অফিস : ৬ষ্ঠ তলা,আইভরীকৃষ্ণচূড়া,৩/১ ই পুরানা পল্টন, ঢাকা-১০০০।
চট্টগ্রাম অফিস : সায়মা আবুল স্কয়ার,বড়পুল,হালিশহর,চট্টগ্রাম।
ফোন : ০১৮১৭-৭৪৩৩৮৭
মেইল : channelkornofuli.org@gmail.com