করোনার ভয়ে আসেনি কেউ,হিন্দু শিক্ষকের লাশের সৎকার করেছে মুসলিম যুবকেরা

প্রকাশ: ২০২০-০৬-১৪ ০৪:৪৮:১৮ 158 Views

গাজীপুরের কালীগঞ্জে করোনা উপস্বর্গ নিয়ে একজন শিক্ষক মৃত্যুবরন করে।সনাতন ধর্মীয় ওই প্রধান শিক্ষকের সৎকারে এগিয়ে আসেনি পরিবারের স্বজনরা।এমনকি নিজ ধর্মের কেউ।তবে মানবতার তাড়নায় লাশের সৎকার সহ শেষকৃত্য পর্যন্ত সম্পন্ন করেছে কয়েকজন মুসলিম যুবক।বিষয়টি এলাকায় ব্যপক সাড়া ফেলেছে।
বৃহস্পতিবার (১১ জুন) সকালে উপজেলার মোক্তার পুর ইউনিয়নের মৈশাইর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।
মৃতঃ শিক্ষকের নাম হরিলাল দেবনাথ (৫৫)। জামালপুর ইউনিয়নের চুপাইর উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ছিলেন।একই উপজেলার মোক্তারপুর ইউনিয়নের মৈশাইর গ্রামের বাসিন্দা ছিলেন।
স্থানীয়রা জানান,করোনা উপস্বর্গ নিয়ে বেশ কয়েকদিন আগে থেকে অসুস্থতায় ভুগছিলেন শিক্ষক হরিলাল দেবনাথ।গত বুধবার (১০ জুন) দিবাগত রাতে তিনি মৃত্যুবরন করেন।পরদিন বৃহস্পতিবার (১১ জুন) সকালে তার সৎকারের সিদ্ধান্ত হয়।কিন্তু করোনায় আক্রান্ত হতে পারে, এমন আশংকায় মৃতের পরিবার, আত্মীয় স্বজন,এমনকি নিজ সম্প্রদায়ের কেউ সৎকার কাজে এগিয়ে আসেনি।এসময় খবর পেয়ে স্থানীয় মো; কবির হোসেন পালোয়ান ও তার সঙ্গীয় কয়েকজন মুসলিম যুবক এসে হাজির হন শিক্ষকের বাড়িতে।স্বাস্থ্যবিধি মেনে এবং প্রয়োজনীয় সুরক্ষিত পোশাক পরিধান করে ওইদিন বিকেলে প্রিয় শিক্ষকের লাশের সৎকার সহ শেষকৃত্য পর্যন্ত সম্পন্ন করে।
নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক ওই শিক্ষকের পরিবারের এক সদস্য বলেন , করোনা সন্দেহে এলাকার সনাতন ধর্মাবলম্বীদের বাঁধার মুখে পড়ে তার পরিবার। কিন্তু এ ব্যাপারে হিন্দু সম্প্রদায় বা সনাতন ধর্মাবলম্বী কোন সংগঠন অথবা কোন ব্যাক্তি এগিয়ে আসেনি।তবে সকল বাঁধা উপেক্ষা করে কবির হোসেন পালোয়ান ও এলাকার কয়েকজন মুসলিম যুবক।যিনি একজন মানুষ গড়ার কারিগর ও তার জীবদ্দশায় হাজার হাজার মানুষকে শিক্ষার আলো ছড়িয়েছেন। কিন্তু তার মৃত্যুতে পরিবার,আত্মীয় স্বজন, এমনকি হিন্দু সম্প্রদায়ের কেউ এগিয়ে আসেনি। যা আমাদের জীবনে অনেক বড় শিক্ষা বলেও মনে করেন তিনি।
স্থানীয়রা বলছেন,ধর্মীয় নিয়ম মেনে শিক্ষক হরিলাল দেবনাথের সৎকার করতে হিন্দু সম্প্রদায়ের এগিয়ে আসার কথা।সেখানে উল্টো বাধা দিয়েছেন তারা। প্রাপ্য সম্মানটুকু পর্যন্ত দেয়া হয়নি তাকে।তবে প্রিয় শিক্ষকের প্রতি সন্মান ও শ্রদ্ধা জানিয়েছেন স্থানীয় মুসলিম যুবকেরা। প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেছেন।
জানতে চাইলে কবির হোসেন পালোয়ান বলেন, হিন্দু মুসলিম বিবেচনা করে নয়,তিনি একজন শিক্ষক ও আল্লাহর সৃষ্টি একজন মানুষ হিসেবে তার লাশ সৎকার কাজ সম্পন্ন করেছেন। ইসলাম শ্রেষ্ঠ এবং শান্তির ধর্ম উল্লেখ করে তিনি আরো বলেন, প্রধান শিক্ষক হরিলাল দেবনাথ একজন ভালো মানুষ ছিলেন। তাই দায়িত্ববোধ থেকেই স্থানীয় কয়েকজন মুসলিম ভাইকে নিয়ে মানবিক কাজে এগিয়ে এসেছি।
কালীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. মোহাম্মদ ছাদেকুর রহমান আকন্দ বলেন, শিক্ষক হরিলাল দেবনাথ করোনা উপসর্গ নিয়ে মারা গেছেন এলাকায় এমন সংবাদ ছড়িয়ে পড়ে। তার শরীরে করোনাভাইরাস ছিল কিনা নিশ্চিত করতে নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে।পরীক্ষার রিপোর্ট পাওয়ার পরে নিশ্চিত হওয়া যাবে।

ট্যাগ :



চেয়ারম্যান ও ব্যবস্থাপনা পরিচালক : মোঃ আব্দুল আজিজ
ডিএমডি : মোঃ আরমান তারেক

বার্তা কক্ষ :

ঢাকা অফিস : ৬ষ্ঠ তলা,আইভরীকৃষ্ণচূড়া,৩/১ ই পুরানা পল্টন, ঢাকা-১০০০।
চট্টগ্রাম অফিস : সায়মা আবুল স্কয়ার,বড়পুল,হালিশহর,চট্টগ্রাম।
ফোন : ০১৮১৭-৭৪৩৩৮৭
মেইল : channelkornofuli.org@gmail.com