ভারুয়াখালীর সর্বস্তরের মানুষকে কাঁদিয়ে চিরদিনের জন্য বিদায় জিএম রহিম উল্লাহ  

প্রকাশ: ২০১৮-১১-২৩ ১৫:২৮:১৯ 330 Views

Spread the love

সেলিম উদ্দীন,কক্সবাজার প্রতিনিধি :-

আর ফিরে আসবেন না অজপাড়াগায়ের এই জননেতা। কারো সাথে দেখা মিলবে না সাদাসিধে মানুষটির। জিএম রহিমুল্লাহ কক্সবাজার সদর উপজেলা পরিষদের বিপুল ভোটে নির্বাচিত চেয়ারম্যান। প্রশাসনিক মূল্যায়নে তিনি অত্যন্ত সৎ ও দক্ষ প্রশাসক এবং সব দলের কাছে গ্রহণযোগ্য ব্যক্তি ছিলেন। পাশাপাশি জামায়াতের কক্সবাজার জেলা সেক্রেটারী পদেও ছিলেন জিএম রহিমুল্লাহ। তিনি জামায়াতের রাজনীতি করলেও সব দলের সাথে ছিল তার সুসম্পর্ক। জীবনে জেনেশুনে কাউকে কষ্ট দেননি। ক্ষতি করেননি কারো। শুধুই দিয়েছেন, নেননি। জমা ছিলনা দু’মুঠো ভাতের টাকা। স্বপরিবারে থাকতেন ভাড়া বাসায়। নিজ গ্রাম ছাড়া অন্য কোথাও একখণ্ড জমি ছিলনা। এই স্বীকৃতি জিএম রহিমুল্লাহর দুই জানাজার মাঠে উপস্থিত লাখো জনতার। সবাই হাত উঁচিয়ে স্বীকার করেছে ‘জিএম রহিমুল্লাহ ভাল মানুষ ছিলেন।’ মরহুম জিএম রহিমুল্লাহর দ্বিতীয় জানাজা নিজের নাভিকাটা এলাকা সদরের ভারুয়াখালীর দারুল উলুম মাদরাসা সংলগ্ন মাঠে অনুষ্ঠিত হয়। প্রায় এক একর বিশিষ্ট উম্মুক্ত মাঠে সংকুলান না হয়ে আশপাশের পাহাড়ের চুড়া, বাসাবাড়ির আঙ্গিনা, পথেঘাটে লোকজন অবস্থান নেয়। দুপুর ১২টার দিকে জিএম রহিমুল্লাহর লাশবাহী এ্যাম্বুলেন্স নিজ এলাকা ভারুয়াখালি পৌঁছলে পুরো এলাকায় শোকের ছায়া নেমে আসে। সবার প্রিয় জিএম রহিমুল্লাহকে একনজর দেখতে ছুটে আসে শিশু-কিশোর আবালবৃদ্ধবনিতা। এ সময় অশ্রু ঝরিয়ে অসংখ্য মানুষকে কাঁদতে দেখা গেছে। পাহাড়ের চূড়া বা বাড়ির আঙ্গিনা থেকে ওঁকি মেরে দেখে মা বোনেরা। বেলা ২ টা বেজে ৪০ মিনিটের দিকে মরহুমের নামাজে জানাজা আদায় করা হয়। ইমামতি করেন ভারুয়াখালী ইউপির সাবেক চেয়ারম্যান মাওলানা আবুল বশর। জানাজাপূর্ব সমাবেশে কক্সবাজার-৩ (সদর-রামু) আসনের সংসদ সদস্য সাইমুম সরওয়ার কমল, চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা জামায়াতের আমীর জাফর সাদেক, শিবিরের কেন্দ্রীয় ছাত্র আন্দোলন বিষয়ক সম্পাদক তৌহিদ হোসেন, কক্সবাজার পৌরসভার সাবেক মেয়র সরওয়ার কামাল, টেকনাফের হোয়াইক্ষ্যং ইউপি চেয়ারম্যান জেলা জামায়াতের নায়েবে আমীর অধ্যক্ষ মাওলানা নুর আহমদ আনোয়ারী, কক্সবাজার সদর উপজেলার সাবেক চেয়ারম্যান এডভোকেট সলিম উল্লাহ বাহাদুর, রামু উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান রিয়াজ উল আলম, চট্টগ্রামের বাঁশখালী উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান জামায়াত নেতা মাওলানা জহিরুল ইসলাম, সাবেক ছাত্রনেতা বিশিষ্ট ব্যবসায়ী জাহাঙ্গীর কাশেম, কক্সবাজার সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আবু তালেব, পেকুয়া উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান উপজেলা যুবদলের সভাপতি শেফায়েত আজিজ রাজু, কক্সবাজার সদর উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান শহিদুল আলম বাহাদুর, ভারুয়াখালী ইউপি চেয়ারম্যান শফিকুর রহমান সিকদার, মাওলানা আবদুর রহিম ও পরিবাবের পক্ষ থেকে বক্তব্য রাখেন যুবলীগ নেতা জিএম জাহিদ ইফতেখার। সভা পরিচালনা করেন এডভোকেট নেজামুল হক। এর আগে প্রথম জানাজা সকাল ১০টা বেজে ৫০ মিনিটে কক্সবাজার কেন্দ্রীয় ঈদগাহ ময়দানে অনুষ্ঠিত হয়েছে। ইমামতি করেন জামায়াতের কেন্দ্রীয় নির্বাহী পরিষদ সদস্য ও ২০ দলীয় জোটের অন্যতম শীর্ষনেতা মাওলানা আবদুল হালিম।

ট্যাগ :



চেয়ারম্যান ও ব্যবস্থাপনা পরিচালক : মোঃ আব্দুল আজিজ
ডিএমডি : মোঃ আরমান তারেক

বার্তা কক্ষ :

ঢাকা অফিস : ৩৭৩, দিলু রোড, মগবাজার, ঢাকা-১২১৭।
চট্টগ্রাম অফিস : সায়মা আবুল স্কয়ার,বড়পুল,হালিশহর,চট্টগ্রাম।
ফোন : ০১৩০৬৭৩৪২৪০
মেইল : channelkornofuli.org@gmail.com