তিন মাস বেতন নেই মোবারকগঞ্জ চিনিকলে

প্রকাশ: ২০২০-০৫-১৮ ০৬:২১:২৩ 64 Views

তিন মাস ধরে বেতন পাচ্ছেন না ঝিনাইদহের মোবারকগঞ্জ চিনিকলের শ্রমিক কর্মচারীরা। ফলে আর্থিক সংকটে বিপর্যয়ের মুখে পড়েছেন তারা।
শ্রমিক নেতারা বলছেন, দ্রুত পাওনা পরিশোধ করা না হলে আন্দোলনে নামবেন তারা। আর কারখানা কর্তৃপক্ষ বলছে, লকডাউনের কারণে উৎপাদিত চিনি বিক্রি না হওয়ায় পরিশোধ করা যাচ্ছে না বকেয়া।

ঝিনাইদহের মোবারকগঞ্জ চিনিকলে গত বছরের ১২ ডিসেম্বর থেকে চলতি বছরের ৮ মার্চ পর্যন্ত আখ মাড়াই হয়। তবে মৌসুম শেষ হলেও ফেব্রুয়ারি মাস থেকে মিল কর্তৃপক্ষ শ্রমিক-কর্মচারীদের বেতন ভাতা দিতে পারেনি। তিন মাস বেতন ভাতা না পেয়ে আর্থিক সংকটে আছেন তারা। এ অবস্থায় টিসিবির মাধ্যমে অবিক্রিত চিনি বিক্রি করে দ্রুত বেতন পরিশোধের দাবি তাদের।

কর্মচারীদের একজন বলেন, ‘৪ মাস চলছে বেতন পাই না। আমরা যে কি অসুবিধায় আছি আল্লাহ পাক জানেন।’
আরেক কর্মচারী বলেন, ‘আমাদের পরিবার নিয়ে অত্যন্ত কষ্টে দিন পার করছি।’

আরেক কর্মচারী বলেন, ‘টিসিবি যদি চিনিকলগুলো থেকে চিনি নিতো তাহলে আমাদের বেতন হতো।’

ঈদের আগে বেতন-ভাতা পরিশোধ করা না হলে কর্মবিরতিসহ আন্দোলনের হুঁশিয়ারি দিয়েছেন শ্রমিক নেতারা।

মোবারগঞ্জ চিনিকল শ্রমিক-কর্মচারী ইউনিয়নের সভাপতি গোলাম রসুল বলেন, ‘ঈদের আগে যদি আমাদের বেতনের ব্যবস্থা না করে আমরা বৃহত্তর আন্দোলনের ডাক দেবো।’

মিল কর্তৃপক্ষ বলছে, করোনার কারণে উৎপাদিত চিনি বিক্রি না হওয়ায় পরিশোধ করা যাচ্ছে না বেতন-ভাতা।

মোবারগঞ্জ চিনিকল লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক আনোয়ার কবির বলেন, ‘ চিনি বড় আকারে বিক্রি করতে পারছি না। আশা করছি পরিস্থিতি স্বাভাবিক হয়ে গেলে বিক্রি করতে পারবো। তখন সকলের বেতন ভাতা পরিশোধ করবো।’

মিল কর্তৃপক্ষের দেয়া তথ্য মতে, সাড়ে ৮’শ শ্রমিক কর্মচারীদের বেতন ভাতা বাবদ প্রায় ৫ কোটি টাকা বকেয়া রয়েছে। আর চিনি অবিক্রিত রয়েছে সাড়ে ৪ হাজার মেট্রিক টন।

ট্যাগ :



চেয়ারম্যান ও ব্যবস্থাপনা পরিচালক : মোঃ আব্দুল আজিজ
ডিএমডি : মোঃ আরমান তারেক

বার্তা কক্ষ :

ঢাকা অফিস : ৬ষ্ঠ তলা,আইভরীকৃষ্ণচূড়া,৩/১ ই পুরানা পল্টন, ঢাকা-১০০০।
চট্টগ্রাম অফিস : সায়মা আবুল স্কয়ার,বড়পুল,হালিশহর,চট্টগ্রাম।
ফোন : ০১৮১৭-৭৪৩৩৮৭
মেইল : channelkornofuli.org@gmail.com