রোহিঙ্গাবাহী নৌকা বাংলাদেশে প্রবেশ করতে দেয়ার আহ্বান জাতিসংঘের

প্রকাশ: ২০২০-০৪-২৮ ০৫:৫৮:৩০ 121 Views

সাগরে অবস্থানরত রোহিঙ্গাবাহী দুটি নৌকাকে বাংলাদেশে প্রবেশ করতে দেয়ার আহ্বান জানিয়েছেন জাতিসংঘের মানবাধিকার কমিশনের প্রধান মিশেল ব্যাচেলেট।
সোমবার (২৭ এপ্রিল) তিনি বলেন, এসব রোহিঙ্গাকে সাহায্য করতে পদক্ষেপ নেয়া না হলে মানবিক বিপর্যয় ঘটতে পারে। বাংলাদেশ সরকারকে লেখা মিশেল ব্যাচেলেটের চিঠির বরাত দিয়ে ফরাসি বার্তা সংস্থা এএফপির খবরে এ কথা জানানো হয়।

এসব নৌকায় অবস্থানরতদের ভাগ্য নিয়ে শঙ্কা প্রকাশ করেছেন জাতিসংঘের মানবাধিকার কমিশনের এ কর্মকর্তা।

গত সপ্তাহে আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যমের খবরে জানা যায়, মালয়েশিয়াসহ কয়েকটি দেশে প্রবেশ করতে ব্যর্থ হয়ে রোহিঙ্গা শরণার্থীবাহী দুটি নৌকা গভীর সমুদ্রে অবস্থান করছে। সে সময় বাংলাদেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রী একে আবদুল মোমেন জানিয়ে দেন, আন্তর্জাতিক সমুদ্র সীমায় অবস্থানরত এসব নৌকাকে বাংলাদেশে প্রবেশ করতে দেয়া হবে না।

বাংলাদেশ সরকারকে লেখা চিঠিতে জাতিসংঘ মানবাধিকার কমিশনের প্রধান মিশেল ব্যাচেলেট লিখেছেন, সংহতির মহিমায় আর পবিত্র রমজানের শুরুতে আপনাদের বন্দর খুলে দিয়ে নৌকাগুলোকে ভিড়তে দেয়ার জোরালো আহ্বান জানাচ্ছি।

তিনি লেখেন, খবর অনুযায়ী এসব নৌকায় পাঁচশোরও বেশি নারী, পুরুষ ও শিশু দীর্ঘদিন ধরে সমুদ্রে রয়েছে। আর আমরা বুঝতে পারছি তাদের দ্রুত উদ্ধার, খাবার, চিকিৎসা সেবা এবং অন্য মানবিক সহায়তা প্রয়োজন।

এদিকে আন্তর্জাতিক সমুদ্র সীমায় অবস্থানরত নৌকা দুটি মালয়েশিয়ায় প্রবেশের সুযোগ পেতে পারে বলে আশা করা হচ্ছে। গত সপ্তাহে একটি নৌকা মালয়েশিয়ার নৌবাহিনী ফিরিয়ে দেয়। এছাড়া মানবপাচার ঠেকাতে দেশটি সম্প্রতি সমুদ্রে টহল জোরালো করেছে।

আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যমে গভীর সমুদ্রে রোহিঙ্গা বহন করা নৌকা অবস্থানের খবর দেয়া হলেও এ ধরনের কোনও নৌকা শনাক্ত করতে পারেনি বলে দাবি করেছে বাংলাদেশ কর্তৃপক্ষ।

২০১৭ সালে রাখাইনে মিয়ানমার সেনাবাহিনীর সহিংস অভিযান ও গণহত্যা শুরু হওয়ার পর প্রায় সাড়ে সাত লাখ রোহিঙ্গা প্রাণভয়ে পালিয়ে এসে বাংলাদেশে আশ্রয় নেয়। মানবিক কারণে তখন বাংলাদেশ সীমান্ত খুলে দেয় সরকার। এর আগেও বিভিন্ন সময়ে রাখাইন থেকে এসে আরও প্রায় সাড়ে তিন লাখ রোহিঙ্গা বাংলাদেশে আশ্রয় নিয়েছিল। নতুন করে প্রায় সাড়ে সাত লাখ যুক্ত হওয়ায় ২০১৭ সালের শেষে বাংলাদেশে আশ্রয় নেয়া রোহিঙ্গার সংখ্যা দাঁড়ায় প্রায় ১১ লাখ।

এরপর থেকে নানা ধরনের আঞ্চলিক ও আন্তর্জাতিক প্রচেষ্টা চললেও নানা অপকৌশলে মিয়ানমার রোহিঙ্গাদের এখন পর্যন্ত ফেরত নেয়নি। বাংলাদেশ ছাড়া বিশ্বের অন্য কোনো দেশও নিপীড়িত রোহিঙ্গাদের নিজেদের দেশে স্বাগত জানায়নি।

ট্যাগ :



চেয়ারম্যান ও ব্যবস্থাপনা পরিচালক : মোঃ আব্দুল আজিজ
ডিএমডি : মোঃ আরমান তারেক

বার্তা কক্ষ :

ঢাকা অফিস : ৬ষ্ঠ তলা,আইভরীকৃষ্ণচূড়া,৩/১ ই পুরানা পল্টন, ঢাকা-১০০০।
চট্টগ্রাম অফিস : সায়মা আবুল স্কয়ার,বড়পুল,হালিশহর,চট্টগ্রাম।
ফোন : ০১৮১৭-৭৪৩৩৮৭
মেইল : channelkornofuli.org@gmail.com