ভেঙেছে ঝড়ে, তিন বছর ধরে হামাগুড়ি দিয়ে ঘরে ঢুকেও মিলেনি কোন সাহায্য

প্রকাশ: ২০২০-০৪-২২ ১১:০৭:৫৮ 144 Views

স্বামী নেই মেয়েকে নিয়ে এক বৃদ্ধা মা মানবেতর জীবন যাপন করছে। ভিক্ষাবৃত্তি আর অন্যের বাসায় কাজ করে সংসার চললেও করোনার প্রভাবে এখন খেয়ে না খেয়ে ঝুঁপড়ি ঘরেই দিনযাপন করছেন অসহায় মা-মেয়ে। নি:স্ব এই পরিবারের ভাগ্যে জোটেনি কোন ধরনের ভাতা কিংবা জনপ্রতিনিধির কাছ থেকে সাহায্য-সহযোগিতা।
ভিক্ষাবৃত্তি আর অন্যের বাড়িতে কাজ করেই চলে মা-মেয়ের সংসার। ভাগ্যের কি নির্মম পরিহাস ঝড়ে বছর তিনেক আগে একমাত্র থাকার টিন সেডের ঘরটি ভেঙ্গে যায়। ভিক্ষা করে যা আয় হয় তা দিয়েই চলে যায় দিন। সেখানে ঘর ঠিক করাটা যেন একটা দু:স্বপ্ন ছাড়া আর কিছুই না। অর্থাভাবে ঘরটি ঠিকঠাক করার সামর্থ্য হয়নি বৃদ্ধা ছালেহা বেওয়ার। তাই দীর্ঘদিন ধরে ভেঙ্গে পড়া ঘরের দরজা-জানালা না থাকায় টিন ফাঁকা করে হামাগুড়ি দিয়ে ঢোকেন এবং বের হন বৃদ্ধা ছালেহা বেওয়া। হামাগুড়ি দিয়ে প্রবেশ করে মাটিতেই ছেড়া-ফাঁটা কাপড় এবং কাঁথা দিয়ে বিছানা করে ঘুমাতে হয় তাকে। আর পাশে একটা ঝুপড়ি ঘরের ব্যবস্থা করে মেয়ে শাহিদা থাকেন।

ট্যাগ :



চেয়ারম্যান ও ব্যবস্থাপনা পরিচালক : মোঃ আব্দুল আজিজ
ডিএমডি : মোঃ আরমান তারেক

বার্তা কক্ষ :

ঢাকা অফিস : ৬ষ্ঠ তলা,আইভরীকৃষ্ণচূড়া,৩/১ ই পুরানা পল্টন, ঢাকা-১০০০।
চট্টগ্রাম অফিস : সায়মা আবুল স্কয়ার,বড়পুল,হালিশহর,চট্টগ্রাম।
ফোন : ০১৮১৭-৭৪৩৩৮৭
মেইল : channelkornofuli.org@gmail.com