ভোটে বুলেটপ্রুফ হেলমেট পুলিশের জন্য বাধ্যতামূলক

প্রকাশ: ২০১৮-১১-১৩ ১৬:৪৮:৫১ 674 Views

Spread the love
কর্ণফুলী ডেস্ক:-

নির্বাচনে সহিংসতা হতে পারে এমন শঙ্কা ব্যক্ত করে দায়িত্ব পালনের সময় পুলিশকে সর্বোচ্চ সতর্কতা অবলম্বনের নির্দেশ দিয়েছেন ডিএমপি কমিশনার আছাদুজ্জামান মিয়া।

পুলিশের নিরাপত্তাকে তিনি বিশেষ গুরুত্ব দিয়ে দায়িত্ব পালনের সময় বুলেটপ্রুপ হেলমেট, লেগ গার্ড ও রাইট গিয়ার সামগ্রী বাধ্যতামূলকভাবে ব্যবহার করতে বলা হয়েছে। তবে ডিইটির সময় মোবাইলফোন ব্যবহার না করতে কঠোর নির্দেশনা দিয়েছেন কমিশনার। বলেছেন, নির্বাচনী আচরণবিধি লঙ্ঘনকারীদের ছাড় দেবে না পুলিশ। সোমবার ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ (ডিএমপি) সদর দফতরে মাসিক অপরাধ সভায় কমিশনার এসব নির্দেশনা দিয়েছেন। সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের সঙ্গে কথা বলে এসব তথ্য জানা গেছে।

ডিএমপির একাধিক পুলিশ কর্মকর্তা যুগান্তরকে বলেন, আজকের (সোমবার) মাসিক অপরাধ সভায় পুলিশের নিরাপত্তার বিষয়ে বেশি গুরুত্ব দিয়েছেন কমিশনার। সভা শুরুর প্রথম ২০ মিনিট তিনি পুলিশ সদস্যদের নিরাপত্তা নিয়েই বক্তব্য দিয়েছেন। এ বিষয়ে তিনি নানা দিকনির্দেশনা দেন।

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে পুলিশের বিরুদ্ধে নানা হুমকির প্রসঙ্গ টেনে কমিশনার বলেছেন, সবকিছু মাথায় রেখে দায়িত্ব পালন করতে হবে। তবে নির্বাচনী আচারণবিধি যেই লঙ্ঘন করুক না কেন, তিনি যে দলেরই হোক না কেন তাকে ছাড় দেয়া যাবে না, দেবেন না।

মনোনয়ন ফর্ম ক্রয়ের সময় নেতাকর্মীরা সঙ্গে যেতে পারবেন- উল্লেখ করে উপস্থিত কর্মকর্তাদের বলেছেন, ওই সময় শোভাযাত্রা করতে দেয়া হবে না। পোস্টার, ফেস্টুন নামিয়ে ফেলতে নির্বাচন কমিশন সিটি কর্পোরেশনকে চিঠি দিয়েছে। তার পরও যদি কাজ না হয়, তাহলে সমন্বয় করে ব্যানার, পোস্টার, ফেস্টুন নামিয়ে ফেলতে থানা পুলিশকে নির্দেশনা দিয়েছেন কমিশনার। অবাধ সুষ্ঠু ভোটের জন্য নির্বাচন কমিশনের নির্দেশনা মেনেই সার্বিক নিরাপত্তা ব্যবস্থা গ্রহণ করতে বলা হয়েছে।

বৈঠকে অংশ নেয়া কর্মকর্তাদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, থানা এলাকায় যখন যা ঘটবে তাৎক্ষণিকভাবে সিনিয়র কর্মকর্তাদের জানানোর পরামর্শ দেয়া হয়েছে। কোনো তথ্য আড়াল করা যাবে না। সুঁই পরিমাণ কোনো ঘটনা ঘটলে সঙ্গে সঙ্গে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণের নির্দেশ দিয়েছেন কমিশনার।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, নির্বাচনে সব দল অংশগ্রহণ করায় পরিবেশ ভালো থাকবে বলে মনে করছেন পুলিশ কর্মকর্তারা। তার পরও কোনো কোনো গোষ্ঠী সহিংসতার চেষ্টা করতে পারে, চড়াও হতে পারে পুলিশের ওপর।

মাসিক অপরাধ পর্যালোচনা সভায় অক্টোবর মাসের ভালো কাজের স্বীকৃতি হিসেবে বিভিন্ন ক্যাটাগরিতে বিজয়ীদের হাতে নগদ অর্থ পুরস্কার তুলে দেন কমিশনার। ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের শ্রেষ্ঠ বিভাগ নির্বাচিত হয়েছে লালবাগ বিভাগ। শ্রেষ্ঠ সহকারী পুলিশ কমিশনার মো. বদরুল হাসান, সহকারী পুলিশ কমিশনার (কোতোয়ালি জোন), লালবাগ বিভাগ, শ্রেষ্ঠ পুলিশ পরিদর্শক (অফিসার ইনচার্জ) শেখ মো. শাহ্ আলম, অফিসার ইনচার্জ, রূপনগর থানা, মিরপুর বিভাগ, শ্রেষ্ঠ পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) মো. ফারুকুল আলম, পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) দারুসসালাম থানা, শ্রেষ্ঠ পুলিশ পরিদর্শক (অপারেশনস্) মাহবুব আলম পুলিশ পরিদর্শক (অপারেশনস্) কদমতলী থানা, ওয়ারী বিভাগ, শ্রেষ্ঠ এসআই যৌথভাবে এসআই হারুন অর রশিদ, ওয়ারী থানা ও এসআই সজীব কোচ, মোহাম্মদপুর থানা, শ্রেষ্ঠ এএসআই যৌথভাবে এএসআই মো. হাসানুর রহমান, রূপনগর থানা ও এএসআই মো. আমিনুল ইসলাম, তেজগাঁও শিল্পাঞ্চল থানা।

ট্যাগ :



চেয়ারম্যান ও ব্যবস্থাপনা পরিচালক : মোঃ আব্দুল আজিজ
ডিএমডি : মোঃ আরমান তারেক

বার্তা কক্ষ :

ঢাকা অফিস : ৩৭৩, দিলু রোড, মগবাজার, ঢাকা-১২১৭।
চট্টগ্রাম অফিস : সায়মা আবুল স্কয়ার,বড়পুল,হালিশহর,চট্টগ্রাম।
ফোন : ০১৩০৬৭৩৪২৪০
মেইল : channelkornofuli.org@gmail.com